আউটসোর্সিং বা ফ্রিল্যান্সিং কি ?

//আউটসোর্সিং বা ফ্রিল্যান্সিং কি ?

আউটসোর্সিং বা ফ্রিল্যান্সিং কি ?

 

আউটসোর্সিং বা ফ্রিল্যান্সিং শব্দটি আমাদের দেশে এখন খুবই পরিচিত। পরিবর্তনশীল এবং প্রতিযোগীতামূলক বিশ্বায়নের এই সময়ে  বিশ্বের বিভিন্ন দেশগুলোতে আর্থ-সামাজিক অস্থিরতার কারনে অর্থনৈতিক বৈশম্য এবং অব্যবস্থাপনার কারনে বেকার সমস্যা ক্রমেই বাড়ছে। যার ফলে বেকার যুবকদের পাশাপাশি স্বল্প আয়ের মানুষ জীবনের প্রয়োজনে বিকল্প আয়ের পথ খুজছে।

কিন্তু আউটসোর্সিং থেকে কি আসলে টাকা বা ডলার আয় করা যায় ?  সহজ উত্তর হ্যা যায় ।  সে জন্য থাকতে হয় কিছু যোগ্যতা ও দক্ষতা । অবশ্যই ইংরেজীসহ অনলাইনের যে কোন একটি বা একাধিক কাজের ভালো দক্ষতা ।

আপনার যদি দক্ষতা থাকে তাহলে আউটসোর্সিং কেন অন্য যেকোন সেক্টরে আপনি সফল হতে পারবেন। আউটসোর্সিংএর ভিন্নতাটুকু হল, এখানে কাজ করা এবং কাজ পাবার স্বাধীনতাটুকু আছে যা আপনি অন্য পেশায় পাবেন না। আর একটা পার্থক্য হল আপনার পরিশ্রমের সঠিক মূল্যায়ন এখানে পাবেন এবং তার জন্য উপযুক্ত সম্মানী পাবেন। আউটসোর্সিং এ  সফল হতে হলে আপনাকে প্রথমেই দক্ষতা অর্জন করতে হবে এবং কাজ করার জন্য সঠিক প্লাটফর্মে আসতে হবে।

আউটসোর্সিং কিংবা  ফ্রিল্যান্সিং শব্দের  অর্থ  মুক্ত পেশা।  মুক্তভাবে কাজ করে আয় করার পেশা। আর একটু সহজ ভাবে বললে, ইন্টারনেটের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন ধরনের কাজ করিয়ে নেয়। নিজ প্রতিষ্ঠানের বাইরে অন্য কাউকে দিয়ে এসব কাজ করানোকে আউটসোর্সিং বলে। যারা আউটসোর্সিংয়ের কাজ করে দেন তাঁদের ফ্রিল্যান্সার বলে।

এই কাজগুলি কি ? আউটসোর্সিং সাইট বা অনলাইন মার্কেট প্লেসে কাজগুলো বিভিন্ন ভাগে ভাগ করা থাকে। যেমন: ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট, নেটওয়ার্কিং ও তথ্যব্যবস্থা (ইনফরমেশন সিস্টেম), লেখা ও অনুবাদ, প্রশাসনিক সহায়তা, ডিজাইন ও মাল্টিমিডিয়া, গ্রাহকসেবা (Customer Service), বিক্রয় ও বিপণন, ব্যবসাসেবা ইত্যাদি। এইসকল কাজগুলি ইন্টারনেট ব্যাবস্থার মাধ্যমে করে দিতে পারলেই অনলাইনে আয় করা সম্ভব। এছাড়াও আরও বিভিন্ন ধরনের উন্নত ধরনের কাজ করারও ব্যাবস্থা আছে আউটসোর্সিং জগতে।

এই জগতে সফল হতে হলে আগে কাজ করার জন্য নিজেকে তৈরী করতে হবে তারপর এই পেশায় প্রবেশ করলে সফল হওয়ার অনেকটাই সুযোগ থাকে।

বিশ্বের সকল দেশেই আউটসোর্সিং জগতে কাজ করে এমন অনেক মানুষ রয়েছে। কিন্তু তাদের সবাই শতভাগ সফল হতে পারে না। মনে রাখবেন আউটসোর্সিং যেহেতু মুক্ত পেশা সেখানে আপনার জবাবদিহিতার চেয়ে আপনার কাজের জবাবদিহিতা বেশি। আপনি এই জগতে আসবেন অবশ্যই উপার্যন করার জন্য এবং আপনি যার কাছ থেকে এই উপার্জনটুকু নিবেন তাকে কোন না কোন সেবা প্রদান করেই এই উপার্যনটুকু করবেন। আপনার কাজ যদি সঠিক না হয় । আপনার কাজে যদি জবাবদিহিতা না থাকে । আপনি যদি কাজ করার ক্ষেত্রে মনযোগী না হন । আপনার কাজে যদি স্বচ্ছতা না থাকে তাহলে আপনি এই সেক্টরে সফল হতে পারবেন না। আউটসোর্সিং এ সবসময় আপনি নিজেকে দিয়ে মূল্যায়ন করবেন। অর্থাৎ আপনি নিজে যদি এই কাজটি (যে কাজটির জন্য আপনি মনোনিত হয়েছেন) অন্য কাউকে দিয়ে করাতেন তাহলে তার কাছ থেকে আপনি কি আশা করতেন এবং অবশ্যই তার চেয়ে একটু বেশিই দেবার চেষ্টা করবেন। তাহলে যে আপনাকে দিয়ে কাজ করাবে সেও খুশি থাকবে আপনার কাজ পাবার সম্ভাবনাও বেড়ে যাবে।

 

2018-07-25T17:44:56+00:00 Categories: ব্লগ|

Leave A Comment

error: Content is protected !!